ঢাকা, , ৯ কার্তিক ১৪২৮ আপডেট : কিছুক্ষণ আগে

আজহারীর বিরুদ্ধে আবারও অপপ্রচার,বিলাসবহুল গাড়িতে তার নয়

আজহারীর বিরুদ্ধে আবারও অপপ্রচার,বিলাসবহুল গাড়িতে তার নয়

এই সময়ের আলোচিত ও জনপ্রিয় ধর্মীয় বক্তা মিজানুর রহমান আজহারীর কয়েকটি ছবি নিয়ে সামাজিক যোগাযোগামাধ্যমে বেশ আলোচনা হচ্ছে। ছবিতে দেখা যাচ্ছে তরুণ এই বক্তা একটি বিলাসবহুল গাড়ির ড্রাইভিং সিটে বসা। আরেকটি ছবিতে দেখা যাচ্ছে তিনি গাড়িটির সামনে দাঁড়িয়ে আছেন। এই ছবি ফেসবুকে ছড়িয়ে দিয়ে কেউ কেউ দাবি করছেন, গাড়িটির মালিক আজহারী। আজহারী কী করে কয়েক কোটি টাকা দামের এই বিলাসবহুল গাড়ি কিনলেন সেটি নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন অনেকে।


তবে যুগান্তরের তথ্যানুসন্ধানে বেরিয়ে এসেছে, যে গাড়িটি নিয়ে এত কথা হচ্ছে সেটির মালিক মিজানুর রহমান আজহারী নন। সিঙ্গাপুর সফরে গিয়ে গাড়িটি তিনি কিছু সময়ের জন্য চালিয়েছিলেন মাত্র। মূলত আজহারীর সমালোচকরাই তার ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ করতে ফেসবুকে এই ছবি ছড়িয়ে তার বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালাচ্ছেন। 


বেন্টনি স্টাইল স্পার (SJZ888IR) মডেলের এই গাড়িটির মালিক বাংলাদেশের এক ব্যবসায়ী। তার নাম সাহিদুজ্জামান টরিক। তিনি সিঙ্গাপুর-বাংলাদেশ বিজনেস চেম্বার ও সিঙ্গাপুরে বাংলাদেশ সোসাইটির সাবেক সভাপতি। তার বাড়ি চুয়াডাঙ্গা জেলায়। 


মিজানুর রহমান আজহারী গত বছরের আগস্টের প্রথম সপ্তাহে সিঙ্গাপুরে একটি তাফসীরুল কোরআন মাহফিলে বয়ান করতে গিয়েছিলেন। সেখানকার বাংলাদেশ কনিউনিটি আয়োজিত ওই মাহফিলটি সিঙ্গাপুর সরকারের অনুমতি নিয়ে সেখানে খাদিজা মসজিদে করা হয়েছিল। সেখানে তিনি সুরাতুল মুমিনুলের ওপর তাফসীর পেশ করেন। 


তখন কমিনিউটির নেতা হিসেবে মিজানুর রহমান আজহারীকে আতিথেয়তা দেন সাহিদুজ্জামান টরিক। এই সময়ে আজহারীকে নিজের গাড়িতে করে সিঙ্গাপুরের কয়েকটি দর্শনীয় স্থান ঘুরে দেখা টরিক। তখন আজহারী কিছু সময়ের জন্য এই গাড়িটি চালান। 


এদিকে যারা আজহারীর গাড়ি নিয়ে অপপ্রচার চালাচ্ছেন তাদের ভাষ্য হচ্ছে, কম করে হলেও ৫ কোটি টাকা দামের এই গাড়ির মালিক আজহারী। তিনি মালয়েশিয়া গিয়ে এই গাড়ি চালান। ইসলামের একজন দাঈ হয়ে মালয়েশিয়ায় কি করে এত দামি গাড়ি কেনেন আজহারী এমন প্রশ্ন তুলেন তারা। 


মাছরাঙ্গা টেলিভিশনের সাংবাদিক ও চুয়াডাঙ্গা প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ফাইজার রহমান ফেসবুকে পোস্ট দিয়ে অপপ্রচারের প্রতিবাদ জানিয়েছেন। তিনি লিখেছেন, ‘আমি মাইকে ওয়াজের বিরোধী। ভালো বক্তা হিসেবে অল্পসময়ে খ্যাতি পাওয়া মিজানুর রহমান আজহারীর মালয়েশিয়া ফিরে যাওয়ার সিদ্ধান্তে অনেকের মত আমিও খুশি। গত দুদিন ধরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মিজানের দামি গাড়ি নিয়ে যে খবরটি ছড়াচ্ছে তা দেখে দু লাইন না লিখে থাকতে পারলাম না।


ছবিটি সত্যি। তবে, ছবিতে যে গাড়িটি দেখা যাচ্ছে সেটি মিজানুর রহমান আজাহারির নয়। কারণ এই গাড়ির মালিককে আমি ব্যক্তিগতভাবে চিনি। ছবি দেয়া হলো , যাদের প্রয়োজন নম্বর মিলিয়ে নিন। বেন্টলি এই গাড়ীটির মালিক সিঙ্গাপুর প্রবাসী বাংলাদেশী ব্যবসায়ী সাহিদুজ্জামান টরিক। আমাদের চুয়াডাঙ্গার সন্তান। গুজব ছড়ানোর আগে একবার ভাবুন। গুজবে লবনের কেজি ২শ টাকা বানিয়েছেন......... সচেতন হোন। নিরাপদে থাকুন ---’। 

  • সর্বশেষ - অন্যান্য