ঢাকা, , ৩১ আষাঢ় ১৪২৭ আপডেট : কিছুক্ষণ আগে

দক্ষিনে ভোটগ্রহণের এক ঘণ্টার মধ্যে অর্ধশতাধিক কেন্দ্র দখলের অভিযোগ ক্ষমতাসীন দলের বিরুদ্ধে

দক্ষিনে ভোটগ্রহণের এক ঘণ্টার মধ্যে অর্ধশতাধিক কেন্দ্র দখলের অভিযোগ ক্ষমতাসীন দলের বিরুদ্ধে

ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচনে সকাল ৮টার আগেই প্রায় অর্ধশত কেন্দ্র দখল করার অভিযোগ করেছে বিএনপি। মানিকনগর শের-ই বাংলা মডেল হাইস্কুল থেকে শুরু করে মুগদা, কমলাপুর,সেগুনবাগিচা,শাহবাগ এলাকার যতগুলো ভোট কেন্দ্র রয়েছে সবই দখল করে নিয়েছেন ক্ষমতাসীন দলের প্রার্থীরা। 

এসব অঞ্চলের কেন্দ্রগুলো থেকে মেয়র প্রার্থী ইশরাক এবং বিএনপির সর্মথিত কাউন্সিলর প্রার্থীদের মারধর করে বের করে দেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এমন কি এসব কেন্দ্র থেকে মারধর করে বের করে দেয়ার সময় কোথাও আইনশৃঙ্খলাবাহিনীর কোন সদস্যকেও দেখা যায়নি। 

সরেজমিনে ঘুরে দেখা গেছে , মানিকনগর প্রাইমারী স্কুল, মানিকনগর শেরইবাংলা মডেল হাইস্কুল,মুগদা প্রাইমারী স্কুল ,সিদ্ধেশ্বরী হাইস্কুল,সিদ্ধেশ্বরী বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয় , ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কার্জন হল, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সুইমিং পুল , কমলাপুর প্রাইমারী স্কুল, সেগুনবাগিচা ২ নম্বর হাইস্কুল খিলগাও , তিলপা পাড়া, তালতলা এলাকাসহ কেন্দ্রসহ অর্ধশত ভোট কেন্দ্রে কোথাও বিএনপি সর্মথিত মেয়র প্রার্থী কিংবা কাউন্সিলর প্রার্থীর বুথ বা পোলিং এজেন্ট নেই।
সেগুন বাগিচা ২ ভোট কেন্দ্রের পোলিং এজেন্ট সিরাজুল ইসলাম সামসু জানান, সকাল বেলাই তাদের মারধর করে বের করে দিয়েছে। এ সময় একজন কর্মীকে মাথায় গরম পানিেঢেলে দিয়েছে আওয়ামীলীগের সর্মথকরা। তারা সাহায্যের জন্য চিৎকার চেচামেচি করলেও কোথাও পুলিশ দেখতে পায়নি।

এ ঘটনায় সাহাবুদ্দিন (২৫) জানান, ‌‌’সেগুনবাগিচা ২এর ৩৭৫ নম্বর কেন্দ্রে তিনি পোলিং এজেন্টর দায়িত্ব পালন করতে গেলে প্রথমেই তাদের বের করে দেয়ার চেষ্টা করে তারা বাধা দিলে সাহাবুদ্দিনকে পাশের গলিতে নিয়ে মারধর করে। এ সময়ে চায়ের দোকানের সদ্য দেয়া ফুটন্ত চায়ের পানি তার মাথায় ঢেলে দেয়। ‘
কার্জন হলের পোলিং এজেন্ট প্রধান শাহবাগ থানার যুবদলের সেক্রেটারী আরিফুল হক চঞ্চল বলেন, কার্জন হল থেকে তাদের ৬জনকে বের করে দেয়া হয়েছে।

এর আগে তারা প্রিসাইডিং কর্মকর্তা কাছে উপস্থিত স্বাক্ষরের জন্য তিনি স্বাক্ষর নেয়নি বলেও অভিযোগ করেন। আরিফুল হক বলেন, তাদের ৬ পোলিং এজেন্টকে প্রচণ্ড মারধর করে বের করে দিয়েছে। তবে যারা মারধর করেছে তারা স্থানীয় আওয়ামীলীগের কোন সদস্য নন , বহিরাগত বলেও অভিযোগ করেন। 

মানিকনগর বিএনপি সর্মথিত প্রার্থীর কোন বুথই নেই। স্থানীয় বিএনপির নেতা মো মাসুদ বলেন, সকালে তাদের কেন্দ্রেই ঢুকতে দেয়া হয়নি। বিএনপির ওকাউরে দেখলেই মারধর করছে। এমনকি ভোট কেন্দ্রেও সবাইকে ঢুকতে দেয়া হচ্ছে না। পরিচিত ২/১জনকে ঢুকতে দেয়া হচ্ছে যারা ভোট দিবে এমনটা নিশ্চিত হয়ে। 

এ ব্যাপারে বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল বলেন , আমরা জানি শতাধিক কেন্দ্র দখল হয়ে গেছে এক ঘন্টার মধ্যেই। মহাসচিবকে জানিয়ে দিয়েছি। তিনি এ নিয়ে গনমাধ্যমে কথা বলবেন কিছুক্ষনের মধ্যেই।

সূত্র :-দেশ জনতা

  • সর্বশেষ - রাজনীতি